ঘুড়ি তুমি ডুরে বাঁধা কল্প সুখের মেলা ,
অট্ট হাসি হাসিবে যখন ছুটবে গগন চড়িয়ে বেলা ।
হৃদস্পন্দন কোলাহলের ছবি আঁকা ,
শিতল বায়ুতে আজ ‘তোমারও মেলেছে পাখা’ ?

গগন ছুঁই ছুঁই স্বপ্ন তোমার ‘ছুটেছো কোথায় যেন?’
স্থল হারা ঘুড়ি আজি করে না হেনতেন ।
অবজ্ঞা আর অবহেলায় উড়েছো গগন প্রানে !
তৃষ্ণা তোমার মিটে যাবে,
যখন ডুর থাকিবেনা নাটাই কোনে ।

আমিও ছিলাম তোমারি মতন
সকলে মোরে করিত যতন
ঈর্ষা জাগিত প্রতিক্ষনে ।
তবুও তারা করিত আদর
পল্লীর লোকে করিত কদর
সদা সর্বক্ষনে ।

আজ কেহ মোর লয়না খবর
স্বপ্নগুলো দিয়েছি কবর
অগাধ জ্বালাময়ী নিরব ক্ষনে ।
এখনো উড়িবার বাসনা জাগে মনে
ডুর তবু বাঁধা ঐ নাটাইয়ের কোনে ।

কোথা যাবো আর কিভা পাবো
হিসেব মেলানো ভার !
তবু সহসা কাব্যিক রস বাইছে শৈশবধার ।

অরন্য কিভা গভীর জলরাশি
সহসা বলেছে ভালবাসি
দেইনী তাদের মূল্য !
তাই তো আজি হৃদ মাজারে চলিছে দূর্লভ কর্মকান্ড ।
উল্লোসিত হই বা নীরব থাকি
খুঁজিবার কেহ নাই !
যাহা ছিলো হারিয়ে বসেছি নিয়তির দূর্শময় ।

ভাগ্যের নাটাই সুতো কাটা ভার সুদিন আসিবার ,
খুঁজিতেছি তাহারে যে জন ছিলো শুধুই আপনার ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here